আজ ৫ই আষাঢ়, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ, ১৯শে জুন, ২০২৪ ইং

বাজেট প্রণয়ন আজ

ক্ষমতাসীন দল আওয়ামী লীগের টানা চতুর্থ সরকারের প্রথম বাজেট আজ। বৃহস্পতিবার (৬ জুন) দুপুর তিনটায় প্রথমবারের মত এই বাজেট উপস্থাপন করবেন বর্তমান সরকারের নতুন অর্থমন্ত্রী আবুল হাসান মাহমুদ আলী।

চলতি বাজেটের তুলনায় ৪ দশমিক ৬০ শতাংশ বাড়িয়ে এবার ৭ লাখ ৯৬ হাজার ৯০০ কোটি টাকার বাজেট তৈরি করেছে সরকার। বাজেটে দ্বাদশ নির্বাচনের আগে প্রতিশ্রুত আওয়ামী লীগের ইশতেহারকে গুরুত্ব দেয়া হচ্ছে বলে জানিয়েছেন দায়িত্বশীল নেতারা।

এদিন স্পিকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরীর সভাপতিত্বে ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার উপস্থিতিতে সংসদে বাজেট উপস্থাপন করবেন অর্থমন্ত্রী। সেজন্য প্রায় ৩২৯ পৃষ্ঠার বিশাল বাজেট বক্তৃতা তৈরি করা হয়েছে। তবে এই বাজেট বক্তৃতার পুরোটা পড়তে হবে না ৮২ বছর বয়সী অর্থমন্ত্রী আবুল হাসান মাহমুদ আলীকে। তিনি বাজেটের সারাংশ স্লাইডের মাধ্যমে তুলে ধরবেন সংসদ সদস্যদের সামনে।

নির্বাচনি ইশতেহারের প্রতিফলই দেখা যাবে আজকের বাজেটে জানিয়ে আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক এস এম কামাল হোসেন বার্তা২৪.কম কে বলেন, আমাদের নির্বাচনি যে প্রতিশ্রুতি ছিলো, দেশের জনগণের সামনে আমরা যে ইশতেহার তুলে ধরেছিলাম সে ইশতেহার বাস্তবায়নের বাজেট হচ্ছে এবারের বাজেট। আমাদের সভানেত্রী প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সার্বিক নির্দেশনায় দেশ ও জাতির কল্যাণের স্বার্থে ও উন্নয়নের ধারাবাহিকতা বজায় রাখার জন্য যা করণীয় তা এবারের বাজেটে সন্নিবেশ করা হয়েছে।

‘সুখী, সমৃদ্ধ, উন্নত ও স্মার্ট বাংলাদেশ বিনির্মাণে অঙ্গীকার’ স্লোগানকে সামনে রেখে এবারের বাজেট প্রণয়ন করা হয়েছে। এবার বাজেট উল্লম্ফন কম হলেও ঘাটতি থেকে যাচ্ছে প্রায় ২ লাখ ৫৬ হাজার কোটি টাকা। তাই রাজস্ব আদায়ের লক্ষমাত্রা পূরণ হলেও এই পরিমাণ টাকা সরকারকে ঋণ নিতে হবে বিভিন্ন অভ্যন্তরীণ ব্যাংক ও বৈদিশিক খাত থেকে।

দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে আওয়ামী লীগের ইশতেহারে দ্রব্যমূল্য, কর্মোপযোগী শিক্ষা ও যুবকদের কর্মসংস্থান, স্মার্ট বাংলাদেশ সমন্বিত কৃষি ব্যবস্থা, যান্ত্রিকীকরণ ও প্রক্রিয়াজাতকরণে বিনিয়োগ বৃদ্ধি, বিনিয়োগ বৃদ্ধি করে শিল্পের প্রসার ঘটানো, আর্থিক খাতে দক্ষতা ও সক্ষমতা বৃদ্ধি, স্বাস্থ্যসেবা সুলভ করা, সর্বজনীন পেনশন, আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর কার্যকারিতা ও জবাবদিহি নিশ্চিত করা, সব ধরনের সন্ত্রাস ও জঙ্গিবাদ রোধ করা সহ সর্বস্তরে গণতান্ত্রিক ব্যবস্থা সুরক্ষা ও চর্চার প্রসার ঘটানোর মত বিষয়গুলো কে এগারো দফা নির্দেশনায় যুক্ত করেছিলো দলটি। তা বাস্তবায়নে বিশেষভাবে নজর দেয়া হয়েছে বলে জানিয়েছেন দলটির দায়িত্বশীল নেতারা।

তাই বৈশ্বিক যুদ্ধ পরিস্থিতি ও ডলারের মূল্যবৃদ্ধিতে মূল্যস্ফীতি লাঘব করে তা সহনীয় পর্যায়ে নিয়ে আসার জন্য থাকবে বিশেষ নির্দেশনা। দ্রব্যমূল্যের অসহনীয় অবস্থায় মানুষকে কিছুটা স্বস্তি দিতে তাই সামাজিক নিরাপত্তা খাতেও বাজেট বাড়িয়েছে দলটি। চলতি অর্থবছরে এ খাতে বরাদ্দ থাকা ১ লাখ ২৬ হাজার ২৭২ কোটি টাকা থেকে বাড়িয়ে ১ লাখ ৩০ হাজার কোটি টাকার বেশি করা হতে পারে বলে জানা গেছে।

এ ছাড়াও বাড়তি নজর থাকবে কর আরোপ, কর্মসংস্থান, করমুক্ত আয়সীমা, শিক্ষা ও স্বাস্থ্য খাতে বরাদ্দের মতো বিষয়গুলোতে।

এ নিয়ে আওয়ামী লীগের যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক আ ফ ম বাহাউদ্দীন নাছিম বার্তা২৪.কম কে বলেন, আমাদের এবারের বাজেট ঘোষিত নির্বাচনি ইশতেহার কে ভিত্তি করেই প্রণয়ন করা হয়েছে। এই বাজেটের মধ্য দিয়ে আমরা আমাদের ইশতেহার বাস্তবায়নের পথে যেতে চাই, সেভাবেই বাজেট নিয়ে কাজ করা হয়েছে।

এবার মূল্যস্ফীতি একটা বড় বিষয় উল্লেখ করে নাছিম বলেন, তাই মূল্যস্ফীতি নিয়ন্ত্রণে আমাদের বড় একটা নজর ছিলো বাজেটে। মূল্যস্ফীতি কমিয়ে উন্নয়নের ধারাকে সমুন্নত রাখা বাজেটের অন্যতম উদ্দেশ্য।

করোনা মহামারী, রাশিয়া-ইউক্রেন যুদ্ধ এবং এরপর সাম্প্রতিক সময়ে ইসরায়েল-ফিলিস্থিনের যুদ্ধের প্রভাবে দ্রব্যমূল্যের ঊর্ধ্বগতি এবং মূল্যস্ফীতি সারা বিশ্বেরই সমস্যা উল্লেখ করে আওয়ামী লীগের এ যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক বলেন, এর প্রভাব বিশ্বের উন্নত, অনুন্নত, স্বল্পোন্নত এবং উন্নয়নশীল দেশসহ সর্বত্র ছড়িয়ে পড়েছে। আমরা সে অবস্থা থেকে উত্তোরণের জন্য বিশেষভাবে নজর দিয়েছি। সেই সাথে মানুষের কল্যাণ ও উন্নয়মেনের প্রবাহমান ধারা যেনো বজায় রাখা যায় সেদিকেও লক্ষ রাখা হচ্ছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

     এই ক্যাটাগরির আরো সংবাদ